বাংলাদেশের অর্থনৈতিক কূটনীতির অপূর্ব সাফল্য!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বিশ্ব ব্যাংক মিয়ানমারের নামে বরাদ্দকৃত ২০কোটি ডলার ঋণ সহায়তা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে। আন্তর্জাতিক, আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে এ জাতীয়  ঋণ দিয়ে থাকে,অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ শর্ত শাপেক্ষে যার মাঝে মানবাধিকার,সুশাসন, স্বচ্ছতা,গনতন্ত্রায়ন,ইত্তাদি।মায়ানমার গত ২৫শে অগাস্ট থেকে সে দেশের আরকান রাজ্যের  রোহিঙ্গা জাতি গোষ্ঠীর ওপর যে অন্যায় অত্যাচার ও মানবতাবিরোধী অপরাধ সংগঠিত করেছে এবং একই সাথে গনতন্ত্র ও উন্নয়নকামী প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশের অর্থনীতির ওপর যে আঘাত বা আক্রমণ করেছে তা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ বাংলাদেশের অন্যান্য মন্ত্রী ও কূটনৈতিকরা বিশ্ববাসীর কাছে গঠনমূলক ভাবে তুলে ধরছে। জাতিসংঘের সাধারন অধিবেসনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ সংক্রান্ত জোরালো ভূমিকা ও নিউইয়র্কে মাননীয় অর্থমন্ত্রীর  যৌক্তিক ভুমিকার কারনে বিশ্বব্যাংক এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেই অনেকের ধারনা। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক বিশেষজ্ঞদের অভিমত যে, মানবতার জন্য  দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে বাংলাদেশ যেভাবে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পাশে দাড়িয়েছে তা বিশ্ববাসীকে মুগ্ধ করেছে।মায়ানমারের ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তাদের উপর ইইইউ ইতিমধ্যে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।তারপূর্বে গ্রেট ব্রিটেন মায়ানমার সেনাবাহিনীর শিক্ষা ও প্রশিক্ষন কার্যক্রমে সহায়তার সুযোগ স্থগিত করেছে।

Leave a Comment