জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় বিশ্বনেতাদের এগিয়ে আসার আহ্বান পরিবেশমন্ত্রীর

জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় বিশ্বনেতাদের এগিয়ে আসার আহ্বান পরিবেশমন্ত্রীর

বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ। তাই বাংলাদেশ-সহ বিশ্বের সকল দেশের জলবায়ু ঝুঁকি কমাতে বিশ্বনেতাদের একসাথে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন।

ভারতের নয়াদিল্লীতে চলমান UNCCD COP-14 সম্মেলনে আজ বাংলাদেশের পক্ষে বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এ আহ্বান জানান। সম্মেলনে তিনি বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব প্রদান করছেন। গতকাল ৯ সেপ্টেম্বর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী COP-14- এর হাই লেভেল সেগমেন্ট উদ্বোধন করেন।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ একটি নদীমাতৃক দেশ। এ দেশের কৃষি সম্পূর্ণ নদীর পানির ওপর নির্ভরশীল। কিন্তু উজানের পানি প্রবাহ সংকুচিত হবার ফলে এ দেশের কৃষিব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এ দেশের ৫৭টি আন্তঃসীমান্ত নদীতে পানিপ্রবাহ সচল রাখার জন্য উজানের পানির ওপর নির্ভর করতে হয়। দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল এখন মরুময়তার হুমকিতে পড়েছে। জনসংখ্যার ঘনত্বের কারণে এ দেশের সীমিত ভূমিতে একাধিক ফসল ফলাতে হয়, কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবের কারণে সেটা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এ সকল সমস্যার একটি গ্রহণযোগ্য সমাধানের জন্য জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি কমানোর কোনো বিকল্প নেই। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টদেরকে আন্তরিকতার সাথে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।

চলতি কনভেনশনে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলার জন্য ২০১৮-২০৩০ সালের মধ্যে প্রায় ৩০টি সিদ্ধান্তের বিষয়ে সম্মতির মাধ্যমে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের একমত হওয়ার কথা রয়েছে। এগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো মরুময়তা ও ভূমি অবক্ষয় দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠীর জীবনের উন্নতি করা, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাস্তুচ্যুত মানুষের উন্নয়ন করা, দুর্যোগ ও খরার প্রভাব প্রশমিত করা।

Leave a Comment