নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করার সময় এসেছে -তথ্যমন্ত্রী

নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করার সময় এসেছে -তথ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশে মোট জনসংখ্যার অর্ধেকই নারী ও শিশু। নারী ও কন্যাশিশুদের এখনও সামাজিকভাবে অবজ্ঞা করা হয়। নারীরাও পুরুষের পাশাপাশি সমান তালে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে পারে। বলেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তথ্যমন্ত্রী আজ চট্টগ্রাম পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে তথ্য মন্ত্রণালয়ের শিশু ও নারী উন্নয়নে সচেতনতামূলক যোগাযোগ কার্যক্রমের আওতায় বাংলাদেশ বেতার আয়োজিত বহিরাঙ্গন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নের স্বার্থে নারীদেরকে পুরুষের সহযোদ্ধা হিসেবে সব ক্ষেত্রে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দিতে হবে। সব ধরনের প্রতিবন্ধকতা দুর করে নারীরা নিজেদের মেধা ও যোগ্যতা দিয়ে নিজেদের অবস্থান তৈরি করে নিয়েছে। এখন নারীর প্রতি সব ধরনের সহিংসতা বন্ধ করার সময় এসেছে।

বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক নারায়ণ চন্দ্র শীলের সভাপতিত্বে চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, সিডিএ চেয়ারম্যান এম জহিরুল আলম দোভাষ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক মোঃ আমিনুল ইসলাম আমিন ও তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আজাহারুল হক উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, ’৯৬ সালের আগে বাংলাদেশের কেউ চিন্তাই করেনি নারীরা তাদের কর্মক্ষেত্রে এতটা প্রভাব বিস্তার করতে পারবে। এটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বের জন্য। আজ নারীরা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল, নারীর জেলা প্রশাসক, নারীরা পুলিশ সুপার, নারীরা পাইলট, নারীরা বিমান, নৌ ও সেনাবাহিনীসহ সব ক্ষেত্রে দক্ষতার সাথে নেতৃত্ব দিচ্ছে।

মন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ বেতার শ্রোতাদের সচেতনতা বৃদ্ধি ও আচরণগত দিক পরিবর্তনের চেষ্টা করে যাচ্ছে। কিশোর-কিশোরীদের বেতার অনুষ্ঠানে সম্পৃক্তকরণের নিমিত্তে ওরিয়েন্টেশন এবং ট্রেনিং অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সারা দেশে শ্রোতাক্লাব গঠন করেছে সরকার।

Leave a Comment