মন্ত্রিসভায় থাকতে পারেন নতুন যারা

মন্ত্রিসভায় থাকতে পারেন নতুন যারা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ের পর টানা তৃতীয় মেয়াদে রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য নতুন মন্ত্রিসভা গঠনের প্রস্তুতি শুরু করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। নতুন মন্ত্রিসভায় কারা আসছেন, কে পাচ্ছেন কোন দফতর- এমন প্রশ্ন এখন সবার মনে। পুরনো আর নতুনদের নিয়েই গঠিত হচ্ছে এবারের মন্ত্রিসভা। পুরনোদের মধ্যে বেশ কয়েক মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর কপাল পুড়তে পারে। নানা কারণে বিতর্কিত হওয়াই মন্ত্রিত্ব হারাতে হচ্ছে তাদের- এমনটাই জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সূত্র।

সংবিধানের ৫৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, মন্ত্রিসভায় একজন প্রধানমন্ত্রী থাকবেন এবং প্রধানমন্ত্রীর নির্ধারিত অন্যান্য মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রী থাকবেন। প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীদের নিয়োগ রাষ্ট্রপতি দিয়ে থাকেন। ৫৬ অনুচ্ছেদে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, সর্বোচ্চ দশভাগের এক ভাগ এমপি নির্বাচিত হওয়ার যোগ্য ব্যক্তিদের মধ্য থেকে মন্ত্রিসভার সদস্য মনোনীত (টেকনোক্র্যাট) হতে পারবেন।

আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড সূত্রে জানা যায়,  ৬-৭ জানুয়ারি গঠিত হতে পারে নতুন মন্ত্রিসভা। এবারো আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাই চতুর্থবারের মত হতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে তিনি দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ চারবারের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন। মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টি (জাপা) দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২টি আসন পেয়ে সংসদে বিরোধী দল হিসেবে বসতে যাচ্ছে। রাজনৈতিক দলের প্রাপ্ত আসনের সংখ্যার বিচারে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আসন।

আলোচনায় রয়েছেন অনেকেই। তাদের মধ্যে মন্ত্রী পদে আলোচনায় যারা রয়েছেন তারা হলেন- আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাবেক আইন ও বিচার বিষয়ক মন্ত্রী ও কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) আসনের এমপি আব্দুল মতিন খসরু, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও টাঙ্গাইল-১ আসনের এমপি আব্দুর রাজ্জাক, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ আসনের এমপি মাহবুবউল আলম হানিফ । আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও পিরোজপুর-১ আসনে নির্বাচিত শ ম রেজাউল করিম, দিনাজপুর-৩ আসনের এমপি ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, শরীয়তপুর-১ আসনের নির্বাচিত এমপি ইকবাল হোসেন অপু, নওগাঁ-৬ আসনে নির্বাচিত ইসরাফিল আলম,  সিলেট-১ আসনে নির্বাচিত একে আব্দুল মোমেন, আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক ড.  সোবাহান গোলাপ.

যারা প্রতিমন্ত্রী হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন: আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম-৯ আসনে নির্বাচিত মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সিরাজগঞ্জ-২ আসনের নির্বাচিত হাবিবে মিল্লাত মুন্না, যশোর-৪ আসনের নৌকার প্রতীকে নির্বাচিত রণজিৎ কুমার রায়, সাতক্ষীরা-৪ আসনের এমপি শ ম জগলুল হায়দার, গাজীপুর-২ আসনের এমপি জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর-৪ আসনের এমপি সিমিন হোসেন রিমি প্রমুখ।

তবে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নবঞ্চিত কয়েক নেতা এবার টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করতে পারেন বলে সূত্রটি নিশ্চিত করেছে। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান ও সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম আলোচনায় রয়েছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৪৫ থেকে ৪৭ সদস্যের বিজয়ী প্রার্থীদের নিয়ে গঠিত হবে এ পরিষদ।

রোববার (৩০ ডিসেম্বর) অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন মহাজোট নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে। নির্বাচন কমিশন সূত্রে বেসরকারি ফলাফলের হিসাবে জানা গেছে, সর্বোচ্চ ২৫৯টি আসনে জয়লাভ করেছে আওয়ামী লীগ।

Leave a Comment