সিপিবির ইশতেহারে ‘ভিশন মুক্তিযুদ্ধ’

সিপিবির ইশতেহারে ‘ভিশন মুক্তিযুদ্ধ’

নির্বাচনমুখী রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সবার আগে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করলো বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)।

রাজধানীর পুরানা পল্টনের মুক্তিভবনে শনিবার ‘ভিশন মুক্তিযুদ্ধ-৭১’ শিরোনামে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ইশতেহার ঘোষণা করা হয়।

ইশতেহারে রাজনীতি ও রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা সংস্কার, ঘুষ, দুর্নীতি, লুটপাটের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণসহ ৩০ দফার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ‘একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সেই স্বপ্ন আজও বাস্তবায়ন হয়নি। সেই স্বপ্ন হলো ‘ভিশন মুক্তিযুদ্ধ-৭১’। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এ স্বপ্ন বাস্তবায়নে তাদের অক্ষমতার প্রমাণ দিয়েছে। তাই জনগণের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটাতে হলে বাম গণতান্ত্রিক বিকল্প শক্তি গড়ে তোলা অপরিহার্য হয়ে উঠেছে।’

এসময় সেলিম একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ‘কাস্তে’মার্কা সিপিবির মনোনীত প্রার্থীদের এবং বাম গণতান্ত্রিক জোট প্রার্থীদের ‘মই’ও ‘কোদাল’মার্কায় ভোট দিয়ে বিজয়ী করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

সেলিম জানান, তারা ক্ষমতায় গেলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সংবিধান, রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা ও রাজনীতির সংস্কার সাধন করবেন।

ইশতেহারে আরও বলা হয়, গণতান্ত্রিক বিকেন্দ্রীকরণ ও স্থানীয় সরকারের ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করাই হবে সিপিবির লক্ষ্য। এছাড়া সংখ্যানুপাতিক প্রতিনিধিত্ব ব্যবস্থা চালু, ‘রুটিন কাজ’এর জন্য ‘নির্বাচনকালীন সরকার’এর বিধান সংবিধানে যুক্তকরণসহ নির্বাচনী ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন করবে দলটি।

বিকল্প অর্থনৈতিক নীতি ও ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, দারিদ্র্য বিমোচন ও বৈষম্য হ্রাস করা, ঘুষ-দুর্নীতি-লুটপাটের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’নীতি গ্রহণ করাও এ দলটির লক্ষ্য।

জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ‘পরিবেশ আদালত’গঠন করে পরিবেশ বিনষ্টকারীদের বিচারের আওতায় আনা, রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ সুন্দরবন এলাকায় শিল্প-কারখানা নির্মাণ বন্ধ, নদী পুনরুজ্জীবিত করার উদ্যোগ গ্রহণসহ প্রকৃতি, পরিবেশ ও জলবায়ু রক্ষা করার বিষয়ে ইশতেহারে উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া জাতীয় স্বার্থ রক্ষা ও বিকল্প জ্বালানি নীতির বাস্তবায়ন করা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়ন করা, সড়ক দুর্ঘটনা রোধ, যোগাযোগ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ও যানজট রোধ, জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ, পানি উন্নয়ন ও বন্যা সমস্যার সমাধান করা হবে বলে ইশতেহারে উল্লেখ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, প্রেসিডিয়াম সদস্য লক্ষ্মী চক্রবর্তী, আব্দুল্লাহ ক্বাফী রতন, অনিরুদ্ধ দাস অঞ্জন, কেন্দ্রীয় নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স প্রমুখ।

Leave a Comment