ভারতের মানচিত্রে এখন ২৮ রাজ্য, ৯ কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল

ভারতের মানচিত্রে এখন ২৮ রাজ্য, ৯ কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল

আগের ঘোষণা অনুসারে, বুধবার মধ্যরাত থেকে রাজ্যের মর্যাদা হারিয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর। কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর। এছাড়া অঞ্চলটি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে আরেকটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হয়েছে লাদাখ।

এতে ভারতের রাজ্যের সংখ্যা কমে ২৮ এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল বেড়ে ৯ হলো। খবর দেশটির শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

ভারতের সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ করায় এবং জম্মু ও কাশ্মীরের পুনর্গঠন বিল আনায় অঞ্চলটি শুধু বিশেষ মর্যাদা নয়, রাজ্যের মর্যাদাও হারায়। বুধবার মধ্যরাত থেকে এটি সরকারিভাবে স্বীকৃতি পেল।

দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানান, সন্ত্রাসবাদের কথা মাথায় রেখে জম্মু ও কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে রাজ্যের মর্যাদা ফিরে পেতে পারে জম্মু ও কাশ্মীর।

তিনি বলেন, লাদাখ এতদিন জম্মু ও কাশ্মীরের সঙ্গে থাকলেও, এখানকার ভূপ্রকৃতি ও জনসংখ্যার চরিত্র আলাদা। অনেকদিন ধরে লাদাখকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করার দাবি জানিয়ে আসছিল এখানকার বাসিন্দারা।

দেশটির সংবিধানের ৩৬০ অনুচ্ছেদ অনুসারে, এই দুই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের আর্থিক সংকট ঘোষণা করার অধিকার থাকবে কেন্দ্র সরকারের হাতে। দিল্লির মতো এই দুই অঞ্চলের আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব চলে আসবে কেন্দ্রের হাতে।

বিজেপি সরকারের এই পদক্ষেপের ফলে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল দিল্লি-পুদুচেরির মতো বিধানসভা নির্বাচন হবে জম্মু ও কাশ্মীরে। তবে দমন ও দিউ বা চণ্ডীগড়ের মতো লাদাখে বিধানসভা থাকবে না। জনসংখ্যার তারতম্যের কারণে এমন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

Leave a Comment