রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ০৪:৩০ পূর্বাহ্ন

শ্রীলঙ্কান নাগরিক হত্যায় দুই জনের যাবজ্জীবন

বিশেষ প্রতিবেদক অসিত কুমার ঘোষ (বাবু)ঃ রাজধানীর শ্যামপুর এলাকায় সুহারা উম্মা ওরফে ফারজিয়া অহিদা নামক এক শ্রীলঙ্কান নাগরিক হত্যা মামলায় দুই জনের যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছেন আদালত। বুধবার ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ শেখ হাফিজুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

পনের বছর আগের এ হত্যাকাণ্ডের মামলায় দণ্ডিত হলেন- চাঁদপুর জেলার মতলব থানার মৃত কফিল উদ্দিনের ছেলে মফিজ উদ্দিন সরকার ওরফে মফিজ এবং রংপুরের কাউনিয়া থানার মৃত আবুলের ছেলে আবু জাহের ওরফে জাহের খান। রায়ে দণ্ডিতদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি প্রত্যেকের ৩০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড অনাদায়ে তাদের আরো ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। দণ্ডিত উভয় আসামী পলাতক।

অন্যদিকে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়া আবুল হোসেন নামের এক আসামীকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।
সুহারা উম্মা হত্যার ঘটনায় তার দেবর আব্বাস আলী ২০০৪ সালের ২৮ জানুয়ারি শ্যামপুর থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

মামলায় অভিযোগ, বাদীর ভাই জহিরুল ইসলাম ওরফে হাফিজ কুয়েত থাকাকালে শ্রীলঙ্কান নাগরিক সুহারা উম্মার সাথে পরিচয় হয়। পরে তারা বিবাহ করেন। তাদের একটি পুত্র সন্তান জন্ম নেয়। এরপর থেকে সুহারা উম্মা তার ছেলে শাকিলকে নিয়ে শ্যামপুরের জিয়া স্মরণী গ্যাস রোডে বসবাস করতে থাকে। ২০০৪ সালের ২৭ জানুয়ারী সন্ধ্যায় সুহারা উম্মার বাসায় তাদের ভাড়াটিয়া আবুল হোসেনের ভায়রা মফিজ ও তার এক বন্ধু যায়। পরে সুহারা উম্মাকে তারা শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় এ হত্যাকা- সংগঠিত হয় বলে চার্জশিটে বলা হয়।

মামলা তদন্তের পর শ্যামপুর থানার এসআই সোহেল আহমেদ তিন জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিটে ফজুলল হক সরকার ওরফে হান্নান নামে এক আসামীকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

মামলাটির বিচারকাজ চলাকালে আদালত চার্জশিটভূক্ত ২২ জন সাক্ষীর মধ্যে ১২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Supported By BiswaJit