শনিবার, ০৪ Jul ২০২০, ০১:১৪ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ :
প্রধানমন্ত্রী নিজেই পাটকল শ্রমিকদের দায়িত্ব নিয়েছেন: পাটমন্ত্রী ভার্চুয়াল  বৈঠকে সাবেক কূটনীতিকদের পরামর্শ নিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত ৩১১৪ ও মৃত্যু ৪২ উত্তেজনার মাঝেই লাদাখ সফরে গেলেন মোদি জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ফারুক কাজী মারা গেছেন ভারতের রপ্তানি পণ্য গ্রহণ না করার প্রতিবাদে আমদানিও বন্ধ ৬ থেকে ৭ মাসের মধ্যে করোনার টিকা বাংলাদেশের বাজারে ছাড়বে গ্লোব গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৩৮, আক্রান্ত ৪০১৯ খাদ্যে ভেজালকারীরা জরিমানা নিয়ে আর প্রশ্ন তুলতে পারবে না : মেয়র তাপস দেশে করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির ইঙ্গিত দিচ্ছে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা

ঢাকা সিটি নির্বাচনে মন্ত্রী এম‌পি‌দের প্রচার নিষিদ্ধ কর‌তে পরিপত্র জারির দাবি

রাজধানীতে দুই সি‌টি করপোরেশনের ভো‌টে মন্ত্রী এম‌পি‌দের প্রচার নিষিদ্ধ কর‌তে পরিপত্র জারির দাবি জানালেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। আসন্ন ঢাকা সিটি নির্বাচনে মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যদের নির্বাচনি প্রচারণা বা নির্বাচনি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ সম্পর্কে বিভ্রান্তি প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও উত্তর-দক্ষিণ সিটির রিটার্নিং অফিসারকে ইউও নোটে এই দাবি করেন তিনি।

আজ সোমবার দুপুরে দেয়া ইউও নোটে মাহবুব তালুকদার বলেন, আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নির্বাচনি প্রচারণা ও নির্বাচনি কার্যক্রমে সংসদ সদস্যরা অংশগ্রহণ করছেন বলে গত ৯ জানুয়ারি ইউও নোটের মাধ্যমে আমি উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলাম।

মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যদের নির্বাচনী প্রচারণা ও নির্বাচনি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ নিয়ে আমার সেই উদ্বেগ বর্তমানে আরো ঘনীভূত হয়েছে। কারণ গত কয়েকদিনে বিধিমালা নিয়ে নানা প্রকার বিভ্রান্তি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আমি মনে করি, বিদ্যমান আচরণবিধি অনুযায়ী নির্বাচন সম্পর্কিত যে কোনো কমিটিতে মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যদের অংশগ্রহণের সুযোগ নেই। এই নির্বাচনি কার্যক্রম ঘরে বা বাইরে যে কোনো স্থানে হতে পারে। এ বিষয়ে আচরণ বিধিমালা, ২০১৬ -এর বিধান অত্যন্ত সুস্পষ্ট। সর্বাধিক দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে, এই বিধিমালা যারা প্রণয়ন করেছেন, তারাই এখন এর বিরোধিতা করছেন। তিনি বলেন, আচরণ বিধিমালা সম্পর্কে যাতে কোনো প্রকার বিভ্রান্তির অবকাশ না থাকে, সে জন্য নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে সুস্পষ্ট নির্দেশনাসহ একটি পরিপত্র জারি করা অত্যাবশ্যক। নইলে এ সব বিভ্রান্তি সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে।

তিনি আরো বলেন, আসন্ন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নির্বাচনি আচরণবিধি কঠোরভাবে পরিপালন নিশ্চিত করতে না পারলে নির্বাচন কমিশন আস্থার সংকটে পড়বে, যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। এই ইউও নোট বাকি তিনজন নির্বাচন কমিশনারকেও পাঠান তিনি।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Supported By BiswaJit